২১ মে ২০২২, শনিবার, ০৬:৩৯:৩৫ অপরাহ্ন
শিরোনাম :
গোয়াইনঘাট উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান গোলাম আম্বিয়া কয়েছ এর পক্ষ থেকে ঈদ শুভেচ্ছা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার হুমায়ুন কবিরের ঈদ শুভেচ্ছা বাণী লুটপাট আর স্বার্থ হাসিলে ব্যস্ত চেয়ারম্যান আঃ রশিদ সওদাগর সংযোগ সড়ক না থাকায় কাজে আসছে না সেতুগুলো ইউক্রেন যুদ্ধের মধ্যেই রাশিয়ার ‘বন্ধু’ দেশকে ‘গোপনে’ এইচকিউ-২২ মিসাইল দিল চীন জাপানে আট দশক ধরে ইসলামের আলো ছড়াচ্ছে কোবের মসজিদ ২০৩০ সালে দুইবার আসবে পবিত্র রমজান গোতাবায়ার কার্যালয়ের সামনে স্থায়ী তাবু গেড়েছে বিক্ষোভকারীরা! জাতির উদ্দেশে প্রধানমন্ত্রীর পূর্ণাঙ্গ ভাষণ মেডিকেলে চান্স পাওয়া সেই শিক্ষার্থীর দায়িত্ব নিলেন উপজেলা চেয়ারম্যান


ফলোঅন এড়াতে পারবে বাংলাদেশ
অনলাইন ডেস্কঃ
  • আপডেট করা হয়েছে : ০৯-০৪-২০২২
ফলোঅন এড়াতে পারবে বাংলাদেশ



পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টে ব্যাটিং বিপর্যয়ের কারণে ফলোঅন পড়ার শঙ্কায় বাংলাদেশ দল। 

দক্ষিণ আফ্রিকার করা ৪৫৩ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমেই উইকেট হারায় বাংলাদেশ। 

৩ রানে ওপেনিং জুটি ভাঙার পর নাজমুল হোসেন শান্তকে সঙ্গে নিয়ে ৭৯ রানের জুটি গড়েন তামিম ইকবাল। 

এক উইকেটে ৮২ রান করা দলটি এরপর মাত্র ৪০ রানের ব্যবধানে ৪ উইকেট হারিয়ে ফলোঅনের শঙ্কায় পড়েছে টাইগাররা। 

এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত বাংলাদেশ দলের সংগ্রহ ৫ উইকেটে ১২৪ রান।  

দক্ষিণ আফ্রিকার করা ৪৫৩ রানের জবাবে ব্যাটিংয়ে নেমে ইনিংসের প্রথম ওভারের পঞ্চম বলে ক্যাচ তুলে দিয়ে ফেরেন ওপেনার মাহমুদুল হাসান জয়।

পোর্ট এলিজাবেথ টেস্টের প্রথম ইনিংসে চার ফিফটির সাহায্যে ৪৫৩ রান সংগ্রহ করে দক্ষিণ আফ্রিকা। বাংলাদেশ দলের হয়ে তাইজুল ইসলাম শিকার করেন সর্বোচ্চ ৬ উইকেট। ৩ উইকেট নেন পেসার খালেদ আহমেদ। আর শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে লিজাদ উইলিয়ামসকে আউট করেন মেহেদি হাসান মিরাজ।

শুক্রবার পোর্ট এলিজাবেথে টস জিতে প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে অধিনায়ক ডিন এলগার (৭০), কিগান পিটারসেন (৬৪) ও টিম্বা বাভুমার (৬৭) ফিফটিতে ভর করে ৫ উইকেটে ২৭৮ রান করে স্বাগতিকরা।  

শনিবার আগের দিনের করা ১০ রান নিয়ে ফের ব্যাটিংয়ে নেমে ২২ রান করে খালেদ আহমেদের বলে বোল্ড হয়ে ফেরেন কাইল ভেরেইনি। শূন্য রানে ব্যাটিংয়ে নেমে ৩৩ রানে তাইজুলের বলে বোল্ড হন ওয়েন মুল্ডার। 

দ্বিতীয় দিনের লাঞ্চের আগে ভেরেইনি ও মুল্ডারকে ফেরাতে ১০২ রান খরচ করে বাংলাদেশ। এরপর প্রতিরোধ গড়ে তোলেন কেশভ মহারাজ। প্রোটিয়া এই অলরাউন্ডারই বেশি ভুগিয়েছেন টাইগার বোলারদের। আট নম্বর পজিশনে ব্যাটিংয়ে নেমে দলীয় সর্বোচ্চ ৮৪ রান করে তাইজুল ইসলামের পঞ্চম শিকারে পরিনত হন মহারাজ। তার ইনিংসটি ৯৫ বলে ৯টি চার আর তিন ছক্কায় সাজানো। 

অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে মহারাজের বিদায়ের পরও দারুণ ব্যাটিং করেন সিমরন হারমার। ৫৯ বল খেলে দুটি বাউন্ডারির সাহায্যে ২৯ রান করেন তিনি। তাকে ষষ্ঠ শিকারে পরিনত করেন তাইজুল। 

টেস্ট ক্যারিয়ারের ৩৬ ম্যাচে ৬১ ইনিংসে এনিয়ে ১০বার পাঁচ বা তার বেশি উইকেট শিকার করলেন তাইজুল। টেস্টে তার সেরা বোলিং ফিগার ৮/৩৯।  ২০১৪ সালে মিরপুরে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ১৬.৫ ওভারে ৭ মেইডেন দিয়ে ৩৯ রানে ৮ উইকেট শিকার করেছিলেন। 

শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে লিজাদ উইলিয়ামসকে আউট করেন মেহেদি হাসান মিরাজ। তার বিদায়ের মধ্য দিয়ে ৪৫৩ রানে অলআউট হয় দক্ষিণ আফ্রিকা। 

সংক্ষিপ্ত স্কোর

দক্ষিণ আফ্রিকা: ১৩৬.২ ওভারে ৪৫৩/১০ রান (মহারাজ ৮৪, ডিন এলগার ৭০, টিম্বা বাভুমা ৬৭, কিগান পিটারসেন ৬৪, রায়ান রিকলপন ৪২, ওয়েন মুল্ডার ৩৩, সিমন হারমার ২৯, সারেল আরউই ২৪; তাইজুল ৬/১৩৫, খালেধ আহমেদ ৩/১০০, মিরাজ ১/৮৫, এবাদত ১২১/০)।

শেয়ার করুন