২১ জানুয়ারী ২০২২, শুক্রবার, ০৫:২৯:০২ পূর্বাহ্ন


হারিছ চৌধুরী ঢাকাতেই ছিলেন ঢাকাতেই মারা গেছেন, দাবি যুক্তরাজ্য বিএনপি সভাপতির
স্টাফ রিপোর্টার মোঃ ফরিদ
  • আপডেট করা হয়েছে : ১৩-০১-২০২২
হারিছ চৌধুরী ঢাকাতেই ছিলেন ঢাকাতেই মারা গেছেন, দাবি যুক্তরাজ্য বিএনপি সভাপতির


বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার সাবেক রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরীর মৃত্যু নিয়ে মুখ খুলেছেন যুক্তরাজ্য বিএনপির সভাপতি এম এ মালেক। তিনি দাবি করেছেন, হারিছ চৌধুরী ১/১১-এর পর থেকে ঢাকাতেই ছিলেন এবং ঢাকাতেই মারা গেছেন। তার দাফনও হয়েছে ঢাকাতে।

লন্ডন বাংলা ভয়েসকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এম এ মালেক এমনটাই জানিয়েছেন। হারিছ চৌধুরী ও তার পরিবারের সঙ্গে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিলো জানিয়ে যুক্তরাজ্য বিএনপির এই সভাপতি আরও বলেন, ‘হারিছ চৌধুরী সাহেব ওয়ানইলেভেনের পর থেকে ঢাকাতেই ছিলেন। ঢাকায় উনার বোনের বাসায় থাকতেন। উনি দেশ থেকে কখনও বাইরে বের হননি। একটা গুজব ছিল উনি হয়তো ভারতে অথবা লন্ডনে। তো লন্ডনের বিষয়টা টোটালি ভিত্তিহীন। কারণ উনার সঙ্গে আমার পারিবরিক, ব্যক্তিগত ও রাজনৈতিকভাবে ঘনিষ্ঠ যোগাযোগ ছিল। সেক্ষেত্রে ছেলে-মেয়ে, ভাবী সবার সঙ্গে একটা গুড রিলেশন ছিল। বিষয়টা হচ্ছে- উনি ওয়ানইলেভেনের পর কখনও লন্ডনে আসেননি। উনি ঢাকাতেই মারা গেছেন। এটা সত্য ঘটনা, আমি খুব ঘনিষ্ঠ সূত্রে এ বিষয়টা জানি। উনাকে ঢাকাতে দাফন করা হয়েছে।’

হারিছ চৌধুরী কবে মারা গেছেন- এমন প্রশ্নে এম এ মালেক বলেন, ‘উনি তিন মাস আগে মারা গেছেন এটা সত্য। উনি মারা যাওয়ার পরই উনার ঘনিষ্ঠ একজন আত্মীয়র সঙ্গে আমার দেখা হয়। গুজবটা আমার কাছেও এসেছিল, তখন উনি আমাকে নিশ্চিত করলেন যে হারিছ চৌধুরী সত্যিকার অর্থে মারা গেছেন এবং ঢাকাতে তার দাফন করা হয়েছে। উনি ঢাকাতে থাকতেন এটা আমি ভালো করে জানি। কারণ ওনার বড় বোনের ঢাকার বাড়িতে উনি থাকতেন। মাঝে মাঝে অন্যান্য ভাইদের বাসাতেও থাকতেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান তারেক রহমান লন্ডনে থাকেন। কিন্তু হারিছ চৌধুরী সাহেব ওয়ানইলেভেনের পরে কখনও লন্ডনে আসেননি। আমার মনে হয় হারিছ চৌধুরী সাহেবের সঙ্গে তারেক রহমানের ওয়ানইলেভেনের পর মৃত্যুর আগে পর্যন্ত- কোনো যোগাযোগ ছিল না।’

শেয়ার করুন